শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:৫৭ পূর্বাহ্ন

নাজিরপুরে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতি ও নেছারাবাদে শিশু মৃত্যুর অভিযোগ

নাজিরপুরে ভুল চিকিৎসায় প্রসূতি ও নেছারাবাদে শিশু মৃত্যুর অভিযোগ

0 Shares

পিরোজপুরের নাজিরপুরে পল্লী চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসায় নিশু আক্তার (১৮) নামে এক প্রসূতি মা এবং জেলার নেছারাবাদে ফাহাদ হোসেন নামে দেড় মাসের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ অভিযোগে শুক্রবার (২৮ আগস্ট) রাতে নেছারাবাদে অভিযুক্ত চিকিৎসক ডাক্তার আবু বকর আকনের চেম্বারে হামলা করেছেন নিহতের স্বজনরা।

জানা গেছে, নিহত প্রসূতি নিশু আক্তার নাজিরপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের কুমারখালীর শাহ আলম মোল্লার মেয়ে। তাকে চিকিৎসা দেওয়া পল্লী চিকিৎসক বাবর আলী বেপারী পার্শ্ববর্তী বাগেরহাট জেলার চিতলমারী উপজেলার চরবানিয়ারী গ্রামের মৃত মজিদ বেপারীর ছেলে। তিনি নাজিরপুরের কুমারখালী বাজারে পল্লী চিকিৎসক হিসেবে সেবা দিয়ে আসছেন।

এদিকে নেছারাবাদে নিহত ফাহাদ হোসেন উপজেলার দক্ষিণ কৌড়িখাড়া গ্রামের মো. সাকিল হোসেনের ছেলে।

নিহত প্রসূতি নিশুর পারিবারিক সূত্র জানায়, নিশু ছয় মাসের অন্তঃস্বত্তা ছিল। গত দুই দিন আগে সে অসুস্থ হলে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক বাবর আলী বেপারীর কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। তার দেওয়া ব্যবস্থাপত্রের ওষুধ সেবন করার পর নিশুর গর্ভের বাচ্চা প্রসব হয়ে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ শুরু হয়। পরে তাকে নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে খুলনা নেওয়া হয়। খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার (২৯ আগস্ট) সকালে তার মৃত্যু হয়।

ওই প্রসূতিকে চিকিৎসা দেওয়া পল্লী চিকিৎসক বাবর আলীর সঙ্গে মোবাইলে কথা হলে তিনি বাংলানিউজকে বলেন, ওই প্রসূতির বাচ্চা প্রসব করানোর জন্য তার বাবা আমার কাছে কয়েকবার আসেন। কিন্তু আমি চিকিৎসা দিতে রাজি হইনি। পরে তার বাবার অনুরোধে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। পরে রক্তপাত না থামলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পড়ে খুলনায় নেওয়া হয়।

নেছারাবাদে নিহত শিশুর স্বজনরা জানান, গত (২৭ আগস্ট) রাতে ওই শিশুটিকে নিয়ে তার বাবা ওই চিকিৎসের কাছে যান। সেখানে চিকিৎসকের দেওয়া ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী ওষুধ খাওয়ানোর পরই ৭/৮ মিনিটের মধ্যে শিশুটির মৃত্যু হয়।

ওই চিকিৎসক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়ের শিশু বিশেষজ্ঞ ও সার্জন বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে ওই চিকিৎসক সাংবাদিকদের জানান, তিনি শিশুটিকে কোনো ভুল চিকিৎসা দেন নি। তাকে দেওয়া ব্যবস্থাপত্রের ওষুধের প্রভাবে এমন হওয়ার কথা নয়।

নেছারাবাদ থানার ওসি (তদন্ত) শেখ আউয়াল কবির জানান, এ ব্যাপারে নিহত শিশুটির বাবা বা চেম্বার ভাঙচুরের ব্যাপারে কোনো পক্ষ থেকে অভিযোগ পাইনি।





প্রয়োজনে : ০১৭১১-১৩৪৩৫৫
Design By MrHostBD
বাংলা English
Copy link
Powered by Social Snap