শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:০৮ পূর্বাহ্ন

পিরোজপুরে চলছে দুর্গা প্রতিমা তৈরির শেষ পর্যায়ের প্রস্তুতি

পিরোজপুরে চলছে দুর্গা প্রতিমা তৈরির শেষ পর্যায়ের প্রস্তুতি

0 Shares

ইন্দুরকানী বার্তা ডেস্ক : সনাতন ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজাকে ঘিরে পিরোজপুর জেলার সর্বত্র অন্য সব বছরের মত উৎসবের আমেজ মহামারী করোনার কারণে বিরাজ না করলে ও প্রতিমা তৈরীর শেষ পর্যায়ের কাজ এগিয়ে চলেছে পুরোদমে। পিরোজপুর পৌর এলাকার কালীবাড়ি, আখড়াবাড়ী, রাজারহাট, পালপাড়া, রায়েরকাঠী এবং কৃষ্ণনগরসহ বিভিন্ন মন্দির ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে। মন্দিরে- মন্দিরে চলছে বিশাল এ দুর্গা পূজার কর্মযজ্ঞের প্রস্তুতি।
আগামী ২২ অক্টোবর ষষ্ঠী পূজা, ২৩ অক্টোবর দুর্গা সপ্তমী, ২৪ অক্টোবর মহাষ্টমী, ২৫ অক্টোবর মহানবমী এবং ২৬ অক্টোবর বিজয়া দশমী এবং প্রতিমা বিসর্জন। শাস্ত্রানুযায়ী এ বছর দেবী দুর্গা দোলায় আগমণ করবেন এবং গজে চড়ে গমন করবেন।
পিরোজপুর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিমল কুমার মন্ডল জানান ২২ অক্টোবর ষষ্ঠী থেকে শারদীয় দুর্গোৎসব এর মুল পূজা শুরু হবে এবং ২৬ অক্টোবর বিজয়া দশমীর মধ্য দিয়ে শেষ হবে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা। জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক গোপাল বসু জানিয়েছেন, এবার জেলায় ৪৫৮টি পূজা মন্ডপে দুর্গা পূজার আয়োজন চলছে। সবচেয়ে বেশি পূজা হচ্ছে নাজিরপুর উপজেলায়।
নাজিরপুরে এবার ৮ টি ইউনিয়নে ১শত ২১টি, পিরোজপুর পৌর এলাকার ১৭টিসহ সদর উপজেলায় ৫৮টি, ভান্ডারিয়া উপজেলায় ৪৪টি, স্বরূপকাঠী উপজেলায় ১০০টি, মঠবাড়িয়া উপজেলায় ৮৬টি, কাউখালী উপজেলায় ২৫টি, এবং ইন্দুরকানী উপজেলায় ২৪টি মন্ডপে প্রতিমা তৈরির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে।
পিরোজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অপরাধ ও প্রশাসন মোল্লা আজাদ হোসেন জানান, সকল মন্দিরে সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণ দুর্গা পূজা সম্পন্ন করার লক্ষ্যে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে। এছাড়া খুব শ্রীঘ্রই জেলা ও উপজেলার পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ এবং মন্দির কমিটির সভাপতি ,সম্পাদকদের সাথে মত বিনিময়ের আয়োজন করবে জেলা পুলিশ।
এদিকে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে গতকাল পূজা উদযাপন পরিষদের জেলা সভাপতি- সম্পাদক ও সকল উপজেলা পূজা পরিষদের সভাপতি-সম্পাদকদের নিয়ে এক মত বিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। এ সভায় জেলা প্রশাসক আবু আলী মোঃ সাজ্জাদ হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অপরাধ ও প্রশাসন মোল্লা আজাদ হোসেনসহ জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ, উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ এবং সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
এ সময় জেলা প্রশাসক জানান মহামারী করোনায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূজার আয়োজন করতে হবে। জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগের পক্ষ থেকে সম্ভাব্য সবধরনের সহযোগিতা করা হবে। এ জেলার সনাতন ধর্মালম্বীরা নিশ্চিন্তে দুর্গা পূজা সম্পন্ন করতে পারবে বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা পুলিশ সুপার মোঃ হায়াতুল ইসলাম খান।





প্রয়োজনে : ০১৭১১-১৩৪৩৫৫
Design By MrHostBD
বাংলা English
Copy link
Powered by Social Snap