বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:০৮ অপরাহ্ন

ইন্দুরকানীতে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

ইন্দুরকানীতে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

0 Shares

ইন্দুরকানী বার্তা:
মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে ইন্দুরকানীর বালিপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৩০ শে ডিসেম্বর শুক্রবার বিকেলে বালিপাড়া ইউনিয়ন ভূমি অফিস সংলগ্ন মাঠে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন বয়াতির সভাপতিত্বে এবং এ হাসান হিরনের সঞ্চালনায় উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট এম মতিউর রহমান।

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান সিকদার, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক, বালিপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব আলী হালদার,সহ-সভাপতি নুরুজ্জামান খান, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম মনিরুজ্জামান, যুবলীগ নেতা জামাল হোসেন মৃধা সহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

এ সময় ইন্দুরকানী থানার ওসি মোঃ এনামুল হক,উপজেলা আওয়ামী লীগের লীগের সহ-সভাপতি মাহমুদুল হক দুলাল, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান সাঈদ, শ্রমিক লীগ সভাপতি আব্দুল হাকিম উপস্থিত ছিলেন।
আলোচনা শেষে সন্ধ্যার পরে এক মনোজ্ঞ সংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, অনেক ত্যাগের বিনিময়ে আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় এখনো স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি নানা চক্রান্ত চালিয়ে যাচ্ছে।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশকে একটি উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে পরিণত করেছেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে উন্নয়ন আর সমৃদ্ধির পথে। দেশের অধিকাংশ মানুষ এখন অর্থনৈতিকভাবে স্বচ্ছল হচ্ছে। দেশের লক্ষ লক্ষ ভূমিহীন ও গৃহহীন অসহায় পরিবারগুলোকে বাসস্থানের ব্যবস্থা করে দিচ্ছে শেখ হাসিনার সরকার। নানা ধরনের ভাতার ব্যবস্থা করছে। রাস্তাঘাট,পুল কালভার্ট,ব্রিজ,মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স,স্কুল,কলেজ, মাদ্রাসার উন্নয়ন এবং দেশের সবগুলো উপজেলায় একটি করে মডেল মসজিদ নির্মাণ করে যাচ্ছে সরকার। দেশের এসব উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতে তারা নানা নীল নকশা আটছে। স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি ও তাদের উত্তরসূরীরাই আজ দেশ-বিরোধী চক্রান্তে লিপ্ত।

বক্তারা আরো বলেন, ২০১৩ সালে সরকার বিরোধী আন্দোলনের নামে এই উপজেলায় টানা তিন মাস ব্যাপী ব্যাপক সহিংস কর্মকান্ড চালায় বিএনপি-জামায়াত। এতে যুবলীগ নেতা স্বপন শীলকে হত্যা,আকমানের চোখ উৎপাটন,যুবলীগ নেতা ও ইউপি সদস্য মিজানুর রহমান মিজানকে নৃশংস ভাবে কুপিয়ে জখম,ছাত্রলীগ নেতা বাপ্পি মোল্লার পায়ে রগ কাটা সহ দলের অসংখ্য নেতা কর্মীর উপর হামলা, বাড়ি ঘর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভাঙচুর ও অগ্নি সংযোগ করে বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীরা। ২০১৩ সালের অগ্নি সন্ত্রাসের ধারাবাহিকতায় আবারো তারা সেই পুরনো রূপে ফিরতে চায়। তাই নাশকতার বিরুদ্ধে তৃণমূলের প্রত্যেকটি নেতাকর্মী,সমার্থককে সর্বত্র সতর্ক থাকার আহ্বান জানানো হয়।





প্রয়োজনে : ০১৭১১-১৩৪৩৫৫
Design By MrHostBD
বাংলা English
Copy link
Powered by Social Snap