বুধবার, ২৪ Jul ২০২৪, ০৯:২১ অপরাহ্ন

ইন্দুরকানীর চার ইউনিয়নে কমিটি নেই যুবলীগের; সাংগঠনিক কার্যক্রমে স্থবিরতা

ইন্দুরকানীর চার ইউনিয়নে কমিটি নেই যুবলীগের; সাংগঠনিক কার্যক্রমে স্থবিরতা

0 Shares

ইন্দুরকানী বার্তা:
পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের মধ্যে চারটিতেই দীর্ঘদিন যাবত নেই ইউনিয়ন যুবলীগের কমিটি। শুধুমাত্র একটিতে আহবায়ক কমিটি থাকলেও তাও দীর্ঘদিন যাবত রয়েছে মেয়াদ উত্তীর্ণ অবস্থায়। ওয়ার্ড গুলোর অবস্থাও একই। এক সময়ে যুবলীগের নেতৃত্বে গোটা উপজেলা জুড়ে চাঙ্গা ভাব থাকলও ইউনিয়ন গুলোতে দীর্ঘদিন ধরে নেতৃত্ব সংকটের কারণে সংগঠনটিতে বর্তমানে বিরাজ করছে চরম অচল অবস্থা। উপজেলা পর্যায়ে দলীয় কোন কর্মসূচির ডাক দিলে ৫ টি ইউনিয়ন থেকে অর্ধ শতাধিক নেতাকর্মি হাজির করাই কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ে সংগঠনটির।
এদিকে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অতি নিকটে হলেও ইউনিয়ন গুলোতে কমিটি দিয়ে সাংগঠনিক তৎপরতা বৃদ্ধির ব্যাপারে উদাসীন সংগঠনটির দায়িত্বশীল নেতারা। নির্বাচনী মাঠ গোছানোর ব্যাপারে নেই কারো কোন তৎপরতা। দিনের পর দিন কমিটি গঠনের ব্যাপারে সময় ক্ষেপণ করায় ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপজেলা নেতৃবৃন্দের উপর হারাচ্ছে আস্থা। একটানা সাড়ে চৌদ্দ বছর দল ক্ষমতায় থাকলেও বিএনপি জামায়াত অধ্যুষিত এই উপজেলাটিতে সাংগঠনিকভাবে ঘুরে দাঁড়ানোর পরিবর্তে দিন দিন আরো দুর্বল হয়ে পড়েছে আ.লীগ। দলের এ অচলাবস্থা নিরসনে গত ১৮ ই মার্চ উপজেলা পরিষদ হলরুমে অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের এক বর্ধিত সভায় গেল রমজানের ঈদের পর ইউনিয়ন এবং ওয়ার্ড পর্যায়ে আ.লীগের সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটি ভেঙে নতুন কমিটি গঠনের মাধ্যমে সাংগঠনিক গতিশীলতা বৃদ্ধির নির্দেশনা দেন জেলা নেতৃবৃৃন্দ। কিন্তু সে নির্দেশনা আমলে নিয়ে এখন পর্যন্ত একটি কমিটিও ঘোষণা দিতে পারেননি স্থানীয় স্ব-স্ব সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
এদিকে গত ইউপি নির্বাচনের আগে উপজেলার তিনটি ইউনিয়ন ভেঙ্গে পাঁচটি ইউনিয়ন গঠন করা হয়। এসব ইউনিয়ন গুলোতে তখন আহ্বায়ক কমিটির মাধ্যমে সাংগঠনিক কার্যক্রম তলতো।
পরে উপজেলা যুবলীগ এক সভার মাধ্যমে ইন্দুরকানী সদর, পত্তাশী,বালিপাড়া ও চন্ডিপুর এ চারটি ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেন। এরপর বারবার উদ্যোগ নিয়েও গত দু’বছরে নতুন কোন কমিটি ঘোষণা দিতে পারেননি সংগঠনটির দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দ। এছাড়া ১ নং পাড়েরহাট ইউনিয়নে তিন মাসের মেয়াদে ২০১৭ সালে ২১ সদস্য বিশিষ্ট একটি আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয় । কিন্তু পাঁচ বছর অতিবাহিত হয়ে গেলেএ থাকলেও এখন পর্যন্ত ঐ ইউনিয়নটিতে পূর্ণাঙ্গ কমিটি দিতে পারেনি উপজেলা নেতৃবৃন্দ। তাই দীর্ঘদিন যাবত নতুন কোন কমিটি না হওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েছেন বিভিন্ন ইউনিয়নের পদ প্রত্যাশী নেতাকর্মিরা। নির্বাচনের আগে আদৌ কোন কমিটি ঘোষণা হবে কিনা তা নিয়েও সন্দিহান সংগঠনটির বিভিন্ন ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতা কর্মীরা।

এ ব্যাপারে বালিপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি পদ প্রত্যাশী জামাল হোসেন মৃধা সহ ক্ষোভ প্রকাশ করে একাধিক নেতাকর্মি প্রতিবেদককে জানান, একেতো ইউনিয়ন কমিটি নেই দীর্ঘদিন ধরে তাছাড়া ওয়ার্ড গুলোও অগোছালো। কমিটি না থাকার কারণে সাংগঠনিকভাবে আমরা অনেক পিছিয়ে রয়েছি। এ অবস্থা চলতে থাকলে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এর প্রভাব পড়বে।

চন্ডিপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি পদ প্রত্যাশী মোঃজিয়াউল হাচান রনি ও সম্পাদক পদ প্রত্যাশী বাপ্পি মোল্লা জানান, দীর্ঘদিন কমিটি না থাকায় আমাদের সাংগঠনিক অবস্থা অনেকটা দুর্বল হয়ে পড়েছে।জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপি জামায়াত যেখানে তড়িৎ গতিতে ঘর গোছাচ্ছে আমাদের নেতৃবৃন্দের সেখানে এ নিয়ে নেই কোন মাথা ব্যাথা।

এ বিষয়ে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুল রাজ্জাক বলেন,আমরা শীঘ্রই এসব ইউনিয়ন গুলোতে নতুন কমিটি দিব। এজন্য আমাদের ঘরোয়া প্রস্তুতি চলছে।





প্রয়োজনে : ০১৭১১-১৩৪৩৫৫
Design By MrHostBD
Copy link
Powered by Social Snap