বুধবার, ২৪ Jul ২০২৪, ১০:১৯ অপরাহ্ন

প্রকাশিত সংবাদে আ.লীগ নেতার প্রতিবাদ

প্রকাশিত সংবাদে আ.লীগ নেতার প্রতিবাদ

0 Shares

গত ২৩শে জুন দৈনিক আমাদের সময়, দৈনিক সমকাল ও দৈনিক নয়াদিগন্ত সহ কয়েকটি গণমাধ্যমে ইন্দুরকানীতে সড়কের সরকারি গাছ কেটে নিল আওয়ামীলীগ নেতা শিরোনামে আমাকে জড়িয়ে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। উক্ত সংবাদটি আমার দৃষ্টি গোচর হাওয়ায় এর আসল ব্যাখ্যা আমি তুলে ধরছি। ইন্দুরকানী উপজেলার দক্ষিণ ভবানীপুর গ্রামের শহিদুল আকনের বাড়ির সামনে ঘূর্ণিঝড় রিমেলে সড়ক ও জনপদ সড়কের উপর বড় আকৃতির একটি চাম্বল গাছ সড়কের উপরে উপড়ে পড়ে। ঝড়ের পরে তখন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাৎক্ষণিক ভাবে রাস্তা পরিষ্কার করার জন্য ডালপালা ছেটে দেয় । কিন্তু গাছের মূল কাণ্ড অনেকদিন যাবত রাস্তার অর্ধেকটা জুড়ে আড়াআড়ি ভাবে পড়েছিল। যার কারণে সড়কে চলাচল করা সব ধরনের যানবাহন ছিল দুর্ঘটনার ঝুঁকিতে । তাছাড়া ওইখানে রাস্তার কিছুটা বাক থাকায় সড়কের উপর গাছ পড়ে থাকার কারণে বিশেষ করে রাতের বেলা দুর্ঘটনার আসংখ্যা ছিল। এটি আমার বাড়ির সন্নিকটে হওয়ায় স্থানীয়রা সহ রাস্তায় চলাচল কারী জনসাধারণ ও বিভিন্ন গাড়ির চালকরা রাস্তার উপর পড়ে থাকা গাছটি সরিয়ে ফেলার জন্য বারবার অনুরোধ করেন। তাই জনস্বার্থে গত শুক্রবার আমি শ্রমিক দিয়ে পড়ে থাকা গাছটি কেটে কয়েক খণ্ড করে রাস্তার পাশে সরিয়ে রাখি। আমি ওখান থেকে একখন্ড গাছও নিজের ব্যক্তিগত কোন কাজে নেয়নি। গাছগুলো এখনো রাস্তার পাশে রয়েছে। কিন্তু বিভিন্ন পত্রিকার স্থানীয় সংবাদ কর্মীরা লক্ষাধিক টাকা মূল্যের পাঁচটি চম্বল ও মেহগনি গাছ কেটে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ তুলে আমার বিরুদ্ধে ২৩ শে জুন বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশ করেন। ওই সংবাদে আমার যে বক্তব্য তুলে ধরা হয়েছে তাও আমার দেয়া নয়। গাছের এ বিষয়টি পরে আমি জেলা বন কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবগত করেছি। কিন্তু আমাকে রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে ভাবে হেও প্রতিপন্ন করার জন্য একটি মহল হয়তো সাংবাদিকদের বিভ্রান্ত মুলক তথ্য দিয়ে এ ধরনের সংবাদ প্রকাশ করিয়েছে। তাই আমি উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

মৃধা মোঃ মনিরুজ্জামান
সাবেক সাধারণ সম্পাদক
উপজেলা আওয়ামী লীগ
ইন্দুরকানী।





প্রয়োজনে : ০১৭১১-১৩৪৩৫৫
Design By MrHostBD
Copy link
Powered by Social Snap