বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:১১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
শিগগিরই নিয়োগ দেয়া হবে ৫৬ হাজার শিক্ষক

শিগগিরই নিয়োগ দেয়া হবে ৫৬ হাজার শিক্ষক

0 Shares

ইন্দুরকানী বার্তা ডেস্ক : প্রায় দুই বছর বন্ধ থাকার পর বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক নিয়োগের জটিলতা কাটল। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের মূল বাধা ‘মামলার’ বিষয়ে মতামত দিয়েছে আইন মন্ত্রণালয়।

ফলে শিগগিরই ৫৬ হাজার শূন্য পদের বিপরীতে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। বিষয়টি নিশ্চিত করে এনটিআরসিএ’র চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত সচিব) আশরাফ উদ্দিন বলেন, আইন মন্ত্রণালয়ের মতামত আমরা পেয়েছি। এটি এখন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। মন্ত্রণালয়ের মতামতের ভিত্তিতে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।

কবে নাগাদ এ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হবে—জানতে চাইলে চেয়ারম্যান বলেন, ‘মন্ত্রণালয় মতামত দেওয়ার পর দ্রুত সময়ে সেটি হবে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেন, ‘আইন মন্ত্রণালয় থেকে মতামত এসেছে, সেটা জানি। কিন্তু এনসিআরসিএ সেটি মন্ত্রণালয়ে পাঠায়নি। পাঠানোর সঙ্গে সঙ্গে দ্রুত সময়ে এর ওপর মতামত দিয়ে পাঠানো হবে। আমরা চাই মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে সব শূন্য পদ পূরণ করতে।’

জানা গেছে, দ্রুত সময়ে এ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশে প্রস্তুতি শুরু করেছে এনটিআরসিএ। সেজন্য আদালতের কিছু আদেশ আছে, সেগুলো যাচাই-বাছাই করে শূন্য প্রকৃত পদের বিপরীতে এ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি জারি হবে। এছাড়া আবেদন প্রক্রিয়া কোন পদ্ধতিতে হবে, তার কর্মপরিকল্পনা তৈরি করা হচ্ছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বর্তমানে ৫৭ হাজারের কিছু বেশি পদ শূন্য রয়েছে। এর মধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভুলের কারণে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়ে নিয়োগ না পাওয়া এক হাজার ২৮৪টি পদে আগের নিয়োগের ভুক্তভোগীদের নিয়োগে সুপারিশ করা হয়েছে। সে হিসাবে ৫৬ হাজারের মতো শূন্য পদে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হতে পারে।

প্রসঙ্গত, বেসরকারি শিক্ষক পদে নিয়োগের সুযোগ পেতে ১৩তম নিবন্ধনধারীরা রিট মামলা করেছিলেন। রিট করা দুই হাজার প্রার্থীকে আবেদনের সুযোগ দিতে আদালতের নির্দেশনাও আছে। এছাড়া যাদের বয়স ৩৫ বছর হয়ে গেছে তাদের আবেদনের সুযোগের বিষয়ে আদালতের নির্দেশনা আছে।

এদিকে, দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকা বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম দ্রুত শুরু করতে আন্দোলন করছেন নিয়োগপ্রত্যাশীরা। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ কার্যালয়ের (এনটিআরসিএ) সামনে তারা প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করেন।

এ সময় তারা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, আগামী এক মাসের মধ্যে নিয়োগের গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা না হলে কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ১-১৫তম ব্যাচের নিবন্ধনধারীরা হাতে বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড ও ফেস্টুন নিয়ে এবং মাথায় সাদা কাপড় ও মুখে কালো ফিতা বেঁধে এনটিআরসিএ’র সামনে জড়ো হন।

নিয়োগপ্রত্যাশীরা জানান, সারাদেশে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রায় ৫৭ হাজার শূন্য পদের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। অথচ নানা অজুহাতে শিক্ষক নিয়োগের গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হচ্ছে না। দ্রুত গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করার জন্য তারা প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করতে বাধ্য হয়েছেন।





প্রয়োজনে : ০১৭১১-১৩৪৩৫৫
Design By MrHostBD
বাংলা English
Copy link
Powered by Social Snap