শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:৫৭ অপরাহ্ন

দুই শিশুকে শারীরিক নির্যাতন; পিটিয়ে ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে একজনের হাত: মামলা দায়ের

দুই শিশুকে শারীরিক নির্যাতন; পিটিয়ে ভেঙ্গে দেয়া হয়েছে একজনের হাত: মামলা দায়ের

0 Shares

ভান্ডারিয়া প্রতিনিধি:
তুচ্ছ ঘটনায় পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ায় মো. রাহাত হাওলাদার (১১) ও ওহেদুল ইসলাম হাওলাদার লালন (৯) নামের দুই স্কুল ছাত্র শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে। এতে পিটুনিতে একজনের হাত ভেঙ্গে যাওয়া সহ গুরুতর আহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বুধবার (১০ মার্চ) বিকালে উপজেলার ধাওয়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের রাজপাশা গ্রামে এ ঘটনা গটে। এ ঘটনায় ভান্ডারিয়া থানায় আজ বৃহস্পতিবার একটি মামলা দায়ের হয়েছে। আহত ওহেদুল ইসলাম হাওলারের পিতা বেলাল বাদী হয়ে অভিযুক্ত বাদল হাওদারের বিরুদ্ধে এ মামলা দায়ের করেন।
আহত রাহাত হাওলাদার জানায়, ওই দিন বিকাল ৫টার দিকে রাজপাশায় বাদল হাওলাদারের বাড়ির সামনের রাস্তায় বসে বাদল হাওলাদারের ২ ছেলে সাইমুন ও সিয়াম তার ভাইরপো মুবিনকে মারধর করে । বিষয়টি মুবিনের মাকে আমরা জানালে সাইমুনের পিতা বাদল হাওলাদার ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে (রাহাত) ও আমার মামাতো ভাই ওহেদুলকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। তার পিটুনিতে আমার বাম হাত ভেঙ্গে যায়। পরে স্থানীয়রা আমাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বাদল হাওলাদারের নির্যাতনে শিশু রাহাত হাওলাদারের বাম হাত ভেঙ্গে যায় এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম হয়েছে। এ সময় তার সাথে থাকা তার মামাতো ভাই ওহেদুল ইসলামকেও পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। আহত রাহাতের বাড়ি উপজেলার নদমুলা ইউনিয়নের চরখালী গ্রামে। সে ওই গ্রামের মৃত্যু শামীম হাওলাদারের ছেলে। আর আহত ওহেদুল ইসলাম হাওলাদার লালন উপজেলার রায়পাশা গ্রামের বেলাল হাওলাদারের ছেলে। গত ২ বছর আগে রাহাতের পিতা-মাতা মারা যাওয়ায় সে রায়পাশা গ্রামে তার মামা বেলাল হওলাদারের বাড়িতে থাকে। রাহাত স্থাণীয় রাজপাশা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেণীতে ও ওহেদুল ইসলাম লালন স্থাণীয় রাজপাশা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার ফয়সাল আহম্মেদ জানান, রাহাতের বাম হাতের কনুই বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তার হাড় ভাঙ্গা জখম সহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে পিটিয়ে আহত করা সহ ওহেদুলের শরীরেও ফুলা জখম রয়েছে। আহত রাহাতকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।
ভাÐারিয়া থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) মো. মাসুমুর রহমান বিশ্বাস জানান, এ ঘটনায় ভাÐারিয়া থানায় অভিযুক্ত বাদল হাওলাদারের বিরুদ্ধে আহত ওহেদুল ইসলাম হাওলারের পিতা বেলাল হাওলাদার বাদী হয়ে থানা মামলা দায়ের করেছেন। আসামীদের গ্রেফতারের জন্য চেষ্টা চলছে। তিনি জানান, পিতৃ-মাতৃহীন অসহায় রাহাত এর চিকিৎসার ব্যয় ভার বহন করছে থানা পুলিশ। ইতিমধ্যে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।





প্রয়োজনে : ০১৭১১-১৩৪৩৫৫
Design By MrHostBD
বাংলা English
Copy link
Powered by Social Snap