মঙ্গলবার, ২৫ Jun ২০২৪, ০৩:১২ অপরাহ্ন

নারায়ণগঞ্জে হেফাজত-পুলিশ সংঘর্ষ, আসামি সাড়ে ৩ হাজার

নারায়ণগঞ্জে হেফাজত-পুলিশ সংঘর্ষ, আসামি সাড়ে ৩ হাজার

0 Shares

ইন্দুরকানী বার্তা ডেস্ক :
হেফাজত ইসলামের নেতাকর্মীদের পিকেটিং থামাতে নারায়ণগঞ্জের শ্যামপুরে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে সতর্ক অবস্থানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

নারায়ণগঞ্জে হেফাজতে ইসলামের হরতালে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় সাতটি মামলা করা হয়েছে। সোমবার (২৯ মার্চ) রাতে এসব মামলা করা হয়। মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) জায়েদুল আলম।

এর মধ্যে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় পুলিশ বাদী হয়ে পাঁচটি ও র‌্যাব বাদী হয়ে একটি মামলা করেছে। অপর মামলাটি করা হয়েছে রূপগঞ্জ থানায়। প্রতিটি মামলায় ২০-২৫ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ৫০০ জনকে আসামি করা হয়েছে। তবে র‌্যাবের মামলায় কারও নাম উল্লেখ না করে অজ্ঞাত ৫০০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান বলেন, রোববার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর হামলা, সরকারি কাজে বাধা, গাড়ি ভাঙচুর করে অগ্নিসংযোগ, সাধারণ মানুষের জানমালের ক্ষতি, সরকারি সম্পদের ক্ষতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে পুলিশের পক্ষ থেকে পাঁচটি ও র‌্যাবের পক্ষ থেকে একটি মামলা করা হয়েছে। সোমবার রাতে মামলাগুলো করা হয়। মামলায় হেফাজতের ব্যানারে নাশকতাকারীদের নামও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। আসামিদের কাউকে গ্রেফতার করা না হলেও অভিযান শুরু হয়েছে।

তবে পুলিশের একটি সূত্র জানায়, হেফাজতের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও বিএনপির সাবেক এমপি গিয়াস উদ্দিন, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মামুন মাহমুদসহ বিএনপি-জামায়াতের বেশ কয়েকজনকে আসামি করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম বলেন, এজাহারনামীয় আসামিদের নাম বলতে পারছি না। কারণ এতে মামলার তদন্ত ও অভিযানে বিরূপ প্রভাব ফেলবে। বিনা উসকানিতে হরতাল সমর্থনকারীরা তাণ্ডব চালিয়েছে। আমরা বারবার শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি পালনের আহ্বান জানালেও তারা ছিল মারমুখী। প্রায় অর্ধশতাধিক যানবাহন ভাঙচুর ও অনেক যানবাহনে আগুন দিয়েছে তারা।

প্রসঙ্গত, রোববার ভোর ৬টা থেকে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা মহাসড়কের শিমরাইল, সানারপাড় এলাকায় গাছের গুঁড়ি ফেলে, বালুর বস্তা রেখে, টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করেন। বেলা ১১টার দিকে মহাসড়ক থেকে সরিয়ে দিতে চাইলে তাদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সংঘর্ষ হয়।

এরপর দফায় দফায় হেফাজত ইসলামের নেতাকর্মীদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ইট-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। সন্ধ্যা পর্যন্ত সাতটি কাভার্ডভ্যান, ছয়টি ট্রাক, চারটি বাস, একটি মাইক্রোবাস ও তিনটি পিকআপে আগুন দেওয়া হয়।





প্রয়োজনে : ০১৭১১-১৩৪৩৫৫
Design By MrHostBD
Copy link
Powered by Social Snap