মঙ্গলবার, ২৫ Jun ২০২৪, ০৩:৫৪ অপরাহ্ন

সাগর থেকে উদ্ধার করা ইন্দুরকানীর ১১ জন সহ ৩২ জেলেকে মোংলায় স্বজনদের কাছে হস্তান্তর

সাগর থেকে উদ্ধার করা ইন্দুরকানীর ১১ জন সহ ৩২ জেলেকে মোংলায় স্বজনদের কাছে হস্তান্তর

0 Shares

ইন্দুরকানী বার্তা:

বৈরী আবহাওয়ায় ইঞ্জিন বিকল হয়ে ডুবে গেছে ট্রলার। কোনও রকমে ট্রলারে থাকা ড্রাম ধরে দুদিন ভাসতে থাকেন উত্তাল বঙ্গোপসাগরে। ভাসতে ভাসতে ভারতীয় জলসীমায় ঢুকে পড়া বাংলাদেশের ৩২ জেলেকে উদ্ধার করেছে দেশটির কোস্টগার্ড। মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) রাতে মোংলা কোস্টগার্ডের কাছে তাদের হস্তান্তর করা হয়েছে। কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোনের (মোংলা সদর দপ্তর) মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার খন্দকার মুনিফ তকি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে একই দিন দুপুরে তাদের মোংলা কোস্ট গার্ডে হস্তান্তর করা হয়।

উদ্ধার হওয়া এনায়েত চৌধুরী (২২) নামে পিরোজপুর জেলার ইন্দুরকানি উপজেলার বাসিন্দা, ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলার মো. ইউসুফ (৩৮), বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলার মো. ফয়সাল (২০) ও পটুয়াখালী জেলার মহিপুর উপজেলার মো. রাব্বি (২৫) বলেন, গত ১৫ আগস্ট সমুদ্র মাছ আহরণের উদ্দেশ্য রওনা হন। এরপর ১৮ ও ১৯ আগস্ট ঝড়ের কবলে পড়ে তাদের মাছ ধরার ট্রলার ইঞ্জিন বিকল হয়ে পানি ঢুকে পড়ে চারটি ট্রলারই ডুবে যায়। এ অবস্থায় পরে তারা তাদের ড্রাম ধরে সাগরে দুদিন ধরে ভাসতে থাকেন। এই দুদিন তারা অভুক্ত অবস্থায় থেকে জীবনের আশা ছেড়ে দেন। তাদের মত বাকিদেরও একই অবস্থা তৈরি হয়।

জেলেরা জানান, ঝড়ের কবলে পড়া চারটি ট্রলারে ৪৭ জন জেলে ছিল। এরমধ্যে ভারতীয় কোস্ট গার্ড ৩২ জনকে উদ্ধার করলেও বাকিরা এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। তবে তারা বেঁচে নেই বলে নিশ্চিত করেছেন এসব জেলেরা।

ঝড়ের কবলে আটকা পড়ে উদ্ধার হওয়া ১১ জন জেলের বাড়ি পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলায়। বাকিরা ভোলা, পটুয়াখালী ও বরগুনা জেলার বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। তাদেরকে আজ মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) রাত ৯টায় তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয় বলে কোস্টগার্ড জানায়।

মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার খন্দকার মুনিফ তকি বলেন, গত ১৮ ও ১৯ আগস্ট বৈরী আবহাওয়ার মুখে পড়ে ইঞ্জিন বিকল হয়ে ফিশিং ট্রলার ‘এফবি জান্নাতুল ফেরদৌস, এফবি আব্দুল্লাহ-১, এফবি ছগির ও এফবি মায়ের দোয়া’ ভাসতে ভাসতে বাংলাদেশ সমুদ্রসীমা অতিক্রম করে ভারতীয় জলসীমায় চলে যায়। এ সময় সমুদ্রে টহলরত অবস্থায় ভারতীয় কোস্ট গার্ড জাহাজ কর্তৃক পরদিন গত ২০ আগস্ট সকাল সাড়ে ৭টায় ১০ জন জেলেকে উদ্ধার করে। পরে উদ্ধারকৃতদের মাধ্যমে ভারতীয় কোস্টগার্ডের এয়ারক্রাফটের মাধ্যমে বাকি নিখোঁজ আরও ২২ জন জেলেকে উদ্ধার করে।

তিনি আরও বলেন, উদ্ধারকৃত ৩২ জেলেদের গত ২৩ আগস্ট দুই দেশের কোস্ট গার্ডের সমঝোতার মাধ্যমে বাংলাদেশ-ভারত সমুদ্র নিয়ন্ত্রণ রেখায় বাংলাদেশ কোস্টগার্ড জাহাজ ‘তাজউদ্দিনের’ নিকট হস্তান্তর করা হয়। এরপর বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড জাহাজ ‘অপরাজেয় বাংলা’য় করে জেলেদের কোস্ট গার্ড মোংলা সদর দফতরে নিয়ে আসে।





প্রয়োজনে : ০১৭১১-১৩৪৩৫৫
Design By MrHostBD
Copy link
Powered by Social Snap