রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০২:১৪ অপরাহ্ন

মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে ভাণ্ডারিয়ায় আ.লীগের ১০ কিলোমিটার দীর্ঘ মানববন্ধন

মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে ভাণ্ডারিয়ায় আ.লীগের ১০ কিলোমিটার দীর্ঘ মানববন্ধন

0 Shares

ইন্দুরকানী বার্তা:
পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে ১০ কিলোমিটার সড়ক জুড়ে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ শনিবার বিকাল ৫টার দিকে ভাণ্ডারিয়া শহরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সড়কের বটতলা থেকে চরখালী বিসমিল্লাহ চত্বর পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার সড়কজুড়ে ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। স্মরণকালের ইতিহাসে এটাই সবচেয়ে বড় মানববন্ধন বলে মনে করছেন এলাকাবাসী।

এতে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংগঠন, উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠন, ইউপি চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্যসহ কয়েক হাজার জনতা অংশ নেন।

শেষে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ভাণ্ডারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফাইজুর রশিদ খসরু জোমাদ্দার, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার খান এনায়েত করিম, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মশিউর রহমান মৃধা, জেলা পরিষদ সদস্য মো. লিয়াকত হোসেন তালুকদার, টুঙ্গিপাড়া আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক হাফিজুর রশিদ তারেক, বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তাফা বাচ্চু, নিজামুল হক নান্না, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি তালুকদার এনামুল কবির টিপু, সাধারণ সম্পাদক এহসাম হাওলাদার, ধাওয়া ইউপি চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান টুলু, ইকড়ি ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হাই হাওলাদার, ভিটাবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল করিম পান্না, নদমূল্লা ইউপি চেয়ারম্যান মেজবাহ উদ্দিন আরিফ, জেলা পরিষদ সদস্য রোকেয়া বেগম, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. শহিদুল আলম স্বপন।

এ ছাড়া নদমুলা ইউনিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি এমরান হোসেন তালুকদার, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহামুদা হোসেন দীনা, উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি আসমা সুলতানা যুথি, উপজেলা ছাত্র লীগের আহ্বায়ক রেদোয়ান সিকদার রিসান, যুগ্ম আহবায়ক আল আমীন সরদার ও পৌর ছাত্রলীগের আব্দুল্লাহ প্রমুখ। এ সময় বক্তারা আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

গত ১৭ এপ্রিল সোমবার রাতে পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টির (মঞ্জু) নেতা-কর্মীদের মধ্যে ইফতার পার্টিকে কেন্দ্র করে দুই দফা সংঘর্ষ ঘটে। এতে উপজেলা যুবলীগ ও ছাত্রলীগের ১৫ নেতা-কর্মী আহত হন। এ সময় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের ব্যাবসায়িক কার্যালয় ও বাসভবনেও ভাঙচুর করা হয়।

এ ঘটনার ৮ দিন পর তেলিখালী ইউপি চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন হাওলাদার এবং উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি তালুকদার এনামুল কবির টিপুসহ ৩২ নেতা-কর্মর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন জাতীয় পার্টির উপজেলা জাতীয় যুব সংহতির সদস্য সচিব মামুন অর রশিদ। এ নিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের মাঝে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।





প্রয়োজনে : ০১৭১১-১৩৪৩৫৫
Design By MrHostBD
Copy link
Powered by Social Snap