মঙ্গলবার, ২৫ Jun ২০২৪, ০৪:০০ অপরাহ্ন

বঙ্গবন্ধু ছিলেন স্বাধীনতার মহান স্থপতি; সাবেক এমপি একেএমএ আউয়াল

বঙ্গবন্ধু ছিলেন স্বাধীনতার মহান স্থপতি; সাবেক এমপি একেএমএ আউয়াল

0 Shares

জে আই লাভলু/শাহাদাত হোসেন বাবু/ইকরামুল শিকদার:
বঙ্গবন্ধু ছিলেন স্বাধীনতার মহান স্থপতি। তার নেতৃত্বে এ দেশ স্বাধীন হয়েছিল। আজকে স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে আমরা সবাই স্বাধীনতার সুফল ভোগ করছি। বঙ্গবন্ধুর যোগ্য উত্তরসূরী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দেশের মানুষ খেয়ে পড়ে এখন খুব শান্তিতে আছে। দেশে এখন আর কোন অভাব নেই। প্রধানমন্ত্রী গরীব,অসহায় ও দরিদ্র মানুষকে এত সুযোগ সুবিধা দিয়েছেন যে এখন আর এলাকায় কাজের লোক খুঁজে পাওয়া যায় না।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৮ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সোমবার ইন্দুরকানী উপজেলার ১০ নং পারেরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে বিকেল সাড়ে তিনটা থেকে সন্ধ্যা সাতটা অব্দি চলা পারেরহাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব একেএমএ আউয়াল তার প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু ধর্মনিরপেক্ষতার কথা বলেছেন। এ দেশ হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান সকলের। এদেশে জাতি, ধর্ম,বর্ণতে কোন ভেদাভেদ থাকবে না।
আজ আমাদের মাঝে জাতির পিতা নেই। তবে তার দুই কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ছোট বোন শেখ রেহেনা সেদিন দেশের বাইরে থাকায় ভাগ্যক্রমে জীবিত রয়েছেন। তাই আপনারা প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া করবেন। যাতে তিনি সুন্দরভাবে দেশ পরিচালনা করতে পারেন।

উক্ত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে পারেরহাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি বাবু গৌতম হালদারের সভাপতিত্বে এবং সাধারন সম্পাদক মহাসীন হাওলাদারের সঞ্চলনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পিরোজপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট কানাই লাল বিশ্বাস,সহ-সভাপতি পৌর মেয়র আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান মালেক,এ্যাডঃ মোস্তফা কামাল,সাংগঠনিক সম্পাদক মো:জিয়াউল আহসান গাজী,শেখ ফিরোজ আহমেদ,ইন্দুরকানী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড.এম মতিউর রহমান,জেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক এডভোকেট শহিদুল হক পান্না,জেলা আ.লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড দেলোয়ার হোসেন,ইন্দুরকানী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান সেলিম,সহ-সভাপতি মাহমুদুল হক দুলাল,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান সাঈদ,উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান দিলরুবা নাহার মিলন,উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক মাতুব্বর সহ স্থানীয় বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট কানাই লাল বিশ্বাস তার বক্তব্যে বলেন, মুজিব আমাদের বিশ্বাস, মুজিব আমাদের চেতনা। শেখ মুজিব এই বাংলাকে সোনার বাংলায় রূপান্তরিত করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ঘাতকরা তার সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করতে দেয়নি। তাকে সেদিন হত্যা করে জাতিকে কলঙ্কিত করেছে এদেশের কুলাঙ্গারা।

জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান মালেক বলেন, বঙ্গবন্ধুর মত একজন অবিসংবাদিত নেতাকে ঘাতকদের নির্মম বুলেটের আঘাতে প্রাণ দিতে হয়েছে এটি সত্যিই আমাদের কাছে অনেক কষ্টের। বঙ্গবন্ধুকে যারা হত্যা করেছে তারা এদেশেরই মানুষ। পাকিস্তানীদের ষড়যন্ত্রে আর এদেশের কিছু কুলাঙ্গারদের নীল নকশায় তাকে প্রাণ দিতে হয়েছে।

জেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউল আহসান গাজী বলেন, ইন্দুরকানী উপজেলা পিরোজপুর-১ সংসদীয় আসনের সাথে যুক্ত হওয়ায় আপনারা আজ বেশ খুশি। আজকে এখানে হাজার হাজার জনতার উপস্থিতিই তার বহিঃপ্রকাশ। এখানে শোক দিবসের আলোচনা সভায় হাজারো নারী পুরুষ, শিশুর স্বতঃস্ফূর্ততা প্রমাণ করে আপনারা বঙ্গবন্ধু এবং তার দল আওয়ামী লীগকে কতটা ভালোবাসেন । জাতির পিতাকে ৭৫’র ১৫ ই আগস্ট সপরিবারে হত্যা করেছিল ঘাতকরা। আজকে তার স্মরণেই আমরা এখানে হাজির হয়েছি।

ইন্দুরকানী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডভোকেট এম মতিউর রহমান বলেন,একটি যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশকে পুনর্গঠনের জন্য যখন কাজে নেমে পড়েন তিনি তখন মোস্তাকদের বিশ্বাসঘাতকতার শিকার হয়ে প্রাণ দিতে হয় বঙ্গবন্ধুকে।

আলোচনা সভা শেষে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টে নিহত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ সকল শহীদের মাগফিরাত কামনায় এবং মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া মোনাজাত করা হয়। পরে সংগঠনটির পক্ষ থেকে দলীয় কর্মি সমার্থক এবং দু:স্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।





প্রয়োজনে : ০১৭১১-১৩৪৩৫৫
Design By MrHostBD
Copy link
Powered by Social Snap