শনিবার, ২২ Jun ২০২৪, ০৩:২৫ অপরাহ্ন

পিরোজপুরে নৌকার প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর; দুই পক্ষের আহত ৭ জন

পিরোজপুরে নৌকার প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর; দুই পক্ষের আহত ৭ জন

0 Shares

পিরোজপুর প্রতিনিধি:
পিরোজপুরের শারিকতলা ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী শ.ম রেজাউল করিমের নির্বাচনী অফিস ভাংচুর করেছে স্বতন্ত্র প্রার্থী আউয়ালের সমর্থকরা। শনিবার (৯ ডিসেম্বর) রাত ৯টার দিকে শারিকতলা ইউনিয়নের মনোপাশা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় শ. ম রেজাউল করিমের সমর্থক বাবু শেখ জানান, শারিকতলা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আজমীর মাঝির পিএস আলামিন শেখের নেতৃত্বে সালাউদ্দিন শেখ, মোহাম্মদ ফকির, নিজাম ফকির, নুরনবী ফকির, তরিক ফকির, লালন ফকির, সিরাজ ফকির,তরিকুল ফকিরসহ আউয়ালের অনুসারীরা মন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিমের নির্বাচনী অফিসে এসে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা ও শ.ম রেজাউল করিমের ছবিসহ আসবাবপত্র ভাংচুর করে। ভাংচুরের পর অফিসের সিসি ক্যামেরাসহ হার্ডডিস্ক নিয়ে যায়।

বাবু শেখ আরও জানান , নির্বাচনের তপশিল ঘোষণা ও শ.ম রেজাউল করিম নৌকা প্রতীক পাওয়ার পর থেকে ওই স্বতন্ত্র প্রার্থীর লোকজন এলাকায় ত্রাসের সৃষ্টি করেছে। কাউকে নৌকায় ভোট না দেওয়ার জন্য হুমকি দিয়ে আসছিলো। সাধারণ ভোটারদের ভয়ভীতি দিয়ে আতঙ্কের সৃষ্টি করে।

এ ব্যাপারে আল আমীন শেখের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

পিরোজপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবির মোহাম্মদ হোসেন বলেন, এমন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে ব্যাবস্থা নিব। যদি এমনটা হয়ে থাকে তাহলে সেটা আচরণবিধি লঙ্ঘন। এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন ব্যবস্থা নেবেন।

এদিকে একই দিন সন্ধ্যায় জেলার নাজিরপুরে স্বতন্ত্র প্রার্থী আউয়ালের কর্মী-সমর্থকদের হামলায় বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ নৌকার ৩ কর্মী আহত হয়েছে। হামলায় আহতরা হলেন- বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. মোতাহার আলী মজুমদার (৭৬), ওই ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো. জাহিদ শেখ (৪৮) ও ৯ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি মো. ছাব্বির হোসেন সর্দার (২৮)। গুরুতর আহতদের উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অপরদিকে নৌকার প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় সতন্ত্র প্রার্থী আউয়ালের চারজন কর্মি আহত হওয়ার কথা দাবি করা হয়েছে। আহতরা পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন বলে জানা গেছে।

অপরদিকে নৌকার প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় সতন্ত্র প্রার্থী আউয়ালের চারজন কর্মি আহত হওয়ার কথা দাবি করা হয়েছে। আহতরা পিরোজপুর জেলা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন বলে জানা গেছে।
ত্যক্ষদর্শী ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান ফকির বলেন, বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোতাহার মজুমদারসহ কয়েক নেতা-কর্মী স্থানীয় বরইবুনিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নৌকার একটি কেন্দ্র কমিটির সভায় যোগ দিতে যাচ্ছিলেন। এ সময় চারঘাটা নামক স্থানে পৌঁছলে দলের স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়ালের পক্ষ হয়ে ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বুলু ও সাধারণ সম্পাদক দিপ্তেন মজুমদারের নেতৃত্বে ১৫-২০ জনের একটি দল তাদের ওই সভায় যেতে বাঁধা দেন। এ সময় তারা প্রতিবাদ করলে তাদের ওপর হামলা করা হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দায়িত্বরত চিকিৎসক দীপান্বীতা দেবনাথ বলেন, আহতদের চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে ওই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দিপ্তেন মজুমদার বাপ্পীর সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমাদের (স্বতন্ত্র প্রার্থী) কেউই তাদের (নৌকার প্রার্থীর কর্মী) ওপর হামলার সঙ্গে জড়িত নন।

পিরোজপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হুমায়ুন কবির জানান, এ ব্যাপারে এখানো কোনো অভিযোগ পাইনি। তবে খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, পিরোজপুর-১ (পিরোজপুর সদর, নাজিরপুর, ইন্দুরকানী) আসনে আ.লীগ মনোনীত প্রার্থী শ ম রেজাউল করিম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল প্রতিদ্বন্দীতা করছেন।





প্রয়োজনে : ০১৭১১-১৩৪৩৫৫
Design By MrHostBD
Copy link
Powered by Social Snap